কর্মসংস্থান

শ্রম ও আয়ের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের নারী

নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের একটা উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে। অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বৈষম্য দূর করতে হলে কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে বৈষম্য দূর করা অত্যন্ত জরুরি। কিন্তু বাংলাদেশের নারীরা অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের দিক থেকে অত্যন্ত নাজুক অবস্থায় রয়েছে। নারী পুরুষের সমান এবং অনেক ক্ষেত্রে অধিক পরিশ্রম ও অবদান রাখলেও পুরুষের মতো আয়-উপার্জন করতে পারেনা। এই না পারাটা মূলত নারীর অবদানের আর্থিক স্বীকৃতি না থাকার কারণে। মোটা দাগে পরিসংখ্যানে দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ২০ শতাংশ নারীর অবদান হিসেবে দেখানো হলেও বিভিন্ন গবেষনায় এটা দেখা গেছে যে, নারীর সামাজিক ও পারিবারিক কল্যাণমূলক কাজ, কৃষি ও অকৃষি শ্রম, গৃহস্থালী কাজ, পরিবারের সদস্যদের সেবা-পরিচর্যা, সন্তান লালন-পালন ইত্যাদির জন্য নারী বিনা পারিশ্রমিকে যে দীর্ঘ কর্মঘন্টা ব্যয় করে তার শ্রমমূল্য নির্ধারণ করলে জিডিপিতে নারীর অবদান দাঁড়াবে ৪৮ শতাংশ, যা জাতীয় উন্নয়নের প্রায় অর্ধেক।

নিচে শ্রম ও আয়ের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের নারীদের বর্তমান অবস্থান পরিসংখ্যানগত চিত্রের মাধ্যমে বর্ণনা করা হলো:

শ্রম ও আয়-
–    বর্তমানে দেশে এক কোটি ৬২ লাখ নারী কর্মক্ষেত্রে রয়েছেন
–    গৃহস্থালীর কাজ করে কোনো মজুরি পান না ৯১ লাখ নারী
–    বাংলাদেশে আট লাখ ৪৯ হাজার নারী দিনমজুর রয়েছেন । নারী দিনমজুরেরা মজুরি পান গড়ে ১৭০ টাকা এবং পুরুষ দিনমজুরেরা মজুরি পান গড়ে ১৮৪ টাকা  তথ্যসূত্র: বিবিএস এর ২০১০ সালের শ্রমশক্তি জরিপ, ৮ মার্চ প্রথম আলো ২০১৪
–   বাংলাদেশের নারীরা সব মিলিয়ে প্রতি বছর গড়ে ৭৭ কোটি ১৬ ঘন্টা গৃহস’ালীর কাজ করেন। এই কাজের অর্থমূল্য ছয় হাজার  ৯৮ কোটি থেকে নয় হাজার ১০৩ কোটি ডলার  যা জিডিপি’র  ১০ দশমিক ৭৫ শতাংশের সমান।
–  বাংলাদেশের জিডিপিতে একজন নারীর কাজের মাত্র ৪৭ শতাংশ যুক্ত হয় অথচ একজন পুরুষের কাজের ৯৮ শতাংশই জিডিপিতে যুক্ত করা হচ্ছে। তথ্যসূত্র: ‘বাংলাদেশের নারীর অনুদঘাটিত অবদান অনুসন্ধান; প্রতিবন্ধকতা, সম্পৃক্ততা ও সম্ভাব্যতা’-ফাহমিদা খাতুন-বাংলাদেশ প্রতিদিন ৮ মার্চ ২০১৪
–  ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প ফাউন্ডেশনের তথ্যমতে, দেশের মোট ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের ৩৫ শতাংশই নারী উদ্যোক্তা বিডি নিউজ ২৪.কম
–   বর্তমানে পোশাক শিল্পে কাজ করছেন ৪০ লাখ শ্রমিক, যার প্রায় ৮০ শতাংশই নারী  তথ্যসূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন ৮ মার্চ, ২০১৪
–  বাংলাদেশে ৭০ শতাংশ নারীর কোনো সম্পত্তি নেই
–  দিনে ১০০ টাকাও মজুরি পাননা ৩২ শতাংশ নারী
–  মাত্র ২৬ শতাংশ নারী উদ্যোক্তা ও শ্রমিক তাঁদের অর্জিত সম্পত্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে মতামত দিতে পারেন। তথ্যসূত্র: ‘নারীর জন্য অর্থনৈতিক ন্যায্যতা, ন্যায্য মজুরি, সম্পদের অধিকার এবং বাজারে প্রবেশাধিকার’ শীর্ষক গবেষণাপত্র, প্রথম আলো, ১৪ জুলাই, ২০১৪

Advertisements