স্বাস্থ্য এবং পুষ্টি

স্বাস্থ্য এবং পুষ্টিসেবা প্রাপ্তিতে বাংলাদেশের নারী এবং শিশু

নারীদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করার মাধ্যমে একটি সুস্থ্ জাতির ভিত তৈরি হতে পারে। এছাড়া সুস্থ নারী শিক্ষা, আয়সহ পারিবারিক ও সামাজিক জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়, তৈরি করতে পারে ভারসাম্যপূর্ণ জাতীয় অগ্রগতির বুনিয়াদ। কিন্তু বাংলাদেশের স্বাস্থ্যক্ষেত্রে চলমান সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগ, ব্যবস্থা বা অবকাঠামো নারীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার পথে সহায়ক নয়।

নিচে সংখাতাত্ত্বিক চিত্রের মাধ্যমে স্বাস্থ্য এবং পুষ্টিসেবা প্রাপ্তিতে বাংলাদেশের নারীদের অবস্থান দেখানো হলো:

-প্রতি বছর ২৩ হাজার মায়ের মৃত্যু হচ্ছে সন্তান জন্মের সময়
-প্রসবজনিত জটিলতায় মারা যাচ্ছে ৬ লাখ মা
-১৮ বছর বয়সের আগেই ৬৬ শতাংশ কিশোরীর বিয়ে হয়
-কিশোরী অবস্থাতেই গর্ভধারণ করেন ৬৪ দশমিক ৩ শতাংশ
-প্রতি হাজার শিশুর জন্ম দিতে গিয়ে ২ দশমিক ৯ ভাগ মা মৃত্যুবরণ করেন
তথ্যসূত্র: সমকাল, ২৮ মে ২০১৪

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের পর্যবেক্ষক প্রতিবেদন অনুযায়ী,

-২০১১ সালে তীব্র অপুষ্টির শিকার শিশু ছিল ১৬ শতাংশ। ২০১৩ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ১৮ শতাংশে

-সমাজের সবচেয়ে ধনিক শ্রেণির ১৫ দশমিক ৪ শতাংশ শিশু অপুষ্টিতে ভুগছে। আর সবচেয়ে দরিদ্র শ্রেণির ২১ দশমিক ১ শতাংশ শিশু অপুষ্টির শিকার।

-বাংলাদেশে পাঁচ বছরের কম বয়সী পাঁচজন শিশুর মধ্যে দুজনের উচ্চতা বয়সের তুলনায় কম। ১১ শতাংশ শিশু কৃশকায়। প্রায় পাঁচ লাখ শিশু মারাত্মক অপুষ্টির শিকার।

তথ্যসূত্র: প্রথম আলো,1 আগস্ট 2014

Advertisements