যথার্থ সম্মান, গুরুত্ব ও মর্যাদায় ময়মনসিংহে নারী দিবস উদযাপন

Mymensingh_region‘ এই হোক অঙ্গীকার, নারী নির্যাতন নয় আর’ – সময়োপযোগী এ প্রতিপাদ্যটি কে ধারণ করে যথার্থ সম্মান, গুরুত্ব ও মর্যাদায় ময়মনসিংহ অঞ্চলের ০৬টি জেলার মোট ৬০টি স্থানে এবারের  নারী দিবস উদযাপিত হয়েছে। জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসী ফোরামের সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এ কার্যক্রমটি বিভিন্ন স্থানে স্থানীয় নারীনেত্রী, উজ্জীবক, ইয়ূথ এবং গণগবেষকদের স্বেচ্ছাব্রতী উদ্যোগে আয়োজিত হয়েছে। এই অনুষ্ঠানগুলোতে ১৫াট সমমনা সংগঠণসহ এ অঞ্চলের বিভিন্ন শ্রেনী পেশার প্রায় দশ হাজার নারী-পুরুষ অংশগ্রহণ করেন।
কিশোরগঞ্জঃ
করিমগঞ্জে র‌্যালী ও আলোচনা সভাঃ জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসী ফোরাম করিমগঞ্জ শাখা, উপজেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের আয়োজনে সকাল ১০.০০ টায় এক বর্ণাঢ্য র‌্যালির মাধ্যমে শুরু হয় দিনের কার্যক্রম। র‌্যালিতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ জোনাব আলী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ গোলাম কবির, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান চাঁন মিয়া, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উজ্জীবক রুপন রাণী সরকার, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা,১০১ তম ব্যাচের এ্যাকটিভ সিটিজেন আব্দুল আওয়াল সানি, ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার এর ময়মনসিংহ অঞ্চলের ফোরাম মেম্বার মোঃ শফিকুল ইসলাম, দি হাঙ্গার প্রজেক্টের স্থানীয় উজ্জীবকবৃন্দ,বাংলাদেশ তরুন সংসদের লোকাল ইয়ূথ কাউন্সিলের সকল সদস্যসহ বিভিন্ন সমমনা এনজিও।

“এই হোক অঙ্গীকার: নারী নির্যাতন নয় আর”, “নারীর তথ্য পাওয়ার অধিকার, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার” এ রকম বিভিন্ন শ্লোগানে মূখরিত হয় করিমগঞ্জ উপজেলা চত্বর। র‌্যালিটি করিমঞ্জ উপজেলার সামনে শুরু হয়ে করিমগঞ্জ কলেজ মোড় ও বাসস্ট্যান্ড প্রদক্ষিণ করে উপজেলা হলরুমে এসে শেষ হয়।
র‌্যালি শেষে শুরু হয় আলোচনা সভা। সভায় সভাপত্বি করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ গোলাম কবির। সভার শুরুতেই বাংলাদেশ তরুন সংসদের লোকাল ইয়ূথ কাউন্সিল- করিমগঞ্জ পৌরসভার সহকারী কো-অর্ডিনেটর, আতিয়া ফারজানা চৈতি নারী দিবসের প্রেক্ষাপট আলোচনা করেন। নারীর সকল বঞ্চনা দূরীকরণে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব জোনাব আলী এই প্রোগ্রামটির আয়োজক ও অংশগ্রহণকারী সংস্থাসমূহের সকলকে ধন্যবাদ জানান। এখানে তিনি বিশেষ করে ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের সকল সদস্য যারা স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে সমাজ উন্নয়নমূলক কাজে জড়িত আছেন, তাদের কথা উল্লেখ করেন। তিনি আরো বলেন যে, আপাত দৃষ্টিতে বাংলাদেশের নারীরা এগিয়ে যাচ্ছে বলে মনে হয়, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এখনও তারা পুরুষতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থার বেড়াজালে বন্দী। এ থেকে উত্তরনের একমাত্র উপায় হলো- নারীদের আরও শিক্ষিত ও সংগঠিত হওয়া। তাহলেই নারীর প্রতি সকল প্রকার বৈষম্য ও নির্যাতন বন্ধ হবে, তাছাড়া তিনি নারীর স্বাস্থ্য ও পুষ্টি বিষয়েও সচেতন থাকার আহবান জানান।
করিমগঞ্জ উপজেলার নারী নির্যাতন কঠোর হস্তে দমন করা হবে উল্লেখ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সকল নারী নির্যাতনকারীকে সতর্ক করেন। উক্ত নারী দিবসের আলোচনা সভায় অতিথি হিসাবে আরও বক্তব্য রাখেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবুল কালাম আজাদ, নারীনেত্রী ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রুপন রাণী সরকার প্রমুখ।
উক্ত আলোচনা সভাটি পরিচালনা করেন উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আমানউল্লাহ দরজী।

করিমগঞ্জের জাফরাবাদ ইউনিয়নে বিশেষ আলোচনা সভা ঃ

গত ৮ মার্চ ২০১৩ তে করিমগঞ্জ উপজলোর জাফরাবাদ ইউনয়িনে পালিত হলো আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০১৩ । এই দিবস উদযাপন উপলক্ষে জাফরাবাদ ইউনিয়নের উজ্জীবক, নারী নেত্রী ও ইয়ূথ লীডারদের সার্বিক সহায়তায় জঙ্গলবাড় মহিলা কলেজে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় । উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন জাফরাবাদ ইউনয়িন পরষিদের ১,২ও ৩ নং ওয়ার্ড এর মহিলা সদস্য আশরাফুন্নাহার রুমা, জঙ্গলবাড়মহিলা কলেজ এর হিসাব রক্ষক শফিকুল ইসলাম, প্ল্যান বাংলাদেশ এর প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর জনাব. মোঃ ইকবাল হোসাইন, ইয়ূথ লীডার দ্বীন মোহাম্মদ সহ আরো অনকে। উদ্বোধনী বক্তব্যে জনাব আশরাফুন্নাহার রুমা সমাজের সকল স্তরে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠা, নিরাপত্তা রক্ষা এবং নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান। এই সভায় আরো বক্তব্য রাখেন নারীনত্রেী মমতাজ বেগম, নারী নেত্রী শাহানা ফেরদৌসী, রুপা আক্তার , বাংলাদশে তরুন সংসদের সদস্য নুরজাহান আক্তার , রাজিবুল ইসলাম ও দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর ইউনয়িন সমন্বয়কারী আব্দুল্লাহ আল মামুন  । উক্ত আলোচনা সভাটি পরিচালনা করেন নারী নেত্রী মনোয়ারা আক্তার  ও রিপা আক্তার ।

কাদির জঙ্গল ইউনিয়নে বিকশিত নারী নেটওয়ার্কের উদ্যোগে র‌্যালী অনুষ্ঠিতঃ
এই হোক অঙ্গীকার: নারী নির্যাতন নয় আর এই শ্লোগানকে সামনে রেখে গত- ৮ মার্চ-২০১৩ এ করিমগঞ্জের কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত হলো আন্তর্জাতিক নারী দিবস। একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালির মাধ্যমে এ দিবসের কার্যক্রম শুরু হয় । র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নের ১২০ তম ব্যাচের নারীনেত্রীবৃন্দ, বাংলাদেশ তরুন সংসদের সদস্য সহ প্রায় ১৫০ জন নারী ও পুরুষ। উক্ত র‌্যালিটির শুভ উদ্বোধন করেন দেহুন্দা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান মোছাঃ লাকী আক্তার ।

টাঙ্গাইল ও জামালপুর:
টাঙ্গাইল ও জামালপুর জেলার ৭টি উপজেলায় মোট ১৬টি স্থানে নারী দিবস উদ্‌যাপিত হয়। স্থানগুলোর মধ্যে উল্যেখযোগ্য হলো  টাঙ্গাইল জেলার ভুয়াপুরের  সদর ,ফলদা, গোপালপুরের  সদর, হেমনগর, শাখারিয়া, জেলা সদরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গন ,সাদত মহাবিদ্যালয় , ঘটাইল সদর, কালিহাতি, জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরাবাদ, সদর উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গন, মেষ্টা ইত্যাদি।

টাঙ্গাইলের হেমনগরে চিত্রাঙ্গণ প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক ও বিতর্কানুষ্ঠানঃ
বিকশিত নারী নেটওয়ার্ক টাঙ্গাইল জেলা কমিটির সম্পাদক আঞ্জু আনোয়ারা ময়নার নেতৃত্বে স্থানীয় নারীনেত্রী ও উজ্জীবকদের উদ্যেগে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণে বিশেষ চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা,  বিতর্ক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ময়মনসিংহ ও শেরপুর:
ময়মনসিংহ ও শেরপুর জেলার ৭টি উপজেলার মোট ১৬টি স্থানে এবারের নারী দিবস উদ্‌যাপিত হয়। স্থানসমূহের মধ্যে রয়েছে আনন্দ মোহন কলেজ ইউনিট , বিকশিত নারী নেটওয়ার্ক ময়মনসিংহ জেলা কমিটি, নান্দাইল উপজেলা সুজন কমিটি, জাহাঙ্গীর পুর , ঘোগা, খাগডহর চর ও নিলক্ষিয়া ইউনিয়ন , শেরপুরের সদর ,ঝিনাইগাতি ও শ্রীবরদী উপজেলা এবং হাতিবান্দা ও কাকিলাকোরা ইউনিয়ন,শহরের ‌‌‌‌অন্যরকম ফ্যশন হাউজ কমিটি এবং সেকান্দর আলী কলেজ।

ময়মনসিয়হের আনন্দ মোহন কলেজে বিতর্কানুষ্ঠান ও চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা:
নারী দিবস ২০১৩ উপলক্ষে বরাবরের মতো এবারো ই্‌য়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার ময়মনসিংহ আনন্দমোহন কলেজ ইউনিটের আয়োজনটি স্থানীয়ভাবে ব্যপক প্রসংশা কুড়িয়েছে। অনুষ্ঠানটি ছিল দুই পর্বে বিভক্ত। প্রথম পর্বে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি আকর্ষণীয় চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে ছিল একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টান। আনন্দ মোহন কলেজ ইউনিটের সমন্বয়কারী  ফারজানা সাম্‌সী নিশুর উপস্থাপনায় উক্ত অনুষ্ঠানে ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার এর সদস্যরা ছাড়াও  বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীবৃন্দ অংশগ্রহণ করে।

নেত্রকোনার আটপাড়ায় বিশেষ অনুষ্ঠান:
নেত্রকোনার আটপাড়া থানায় বিকশিত নারী নেটওয়ার্ক এর উদ্যোগে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়। পরবর্তীতে বিকশিত নারী নেটওয়ার্কের আয়োজনে  স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে বতির্ক প্রতযিোগতিা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

কাইলাটরি অনন্তপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত:
কাইলাটরি অনন্তপুর প্রাথমকি বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বিশেষ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো: তফসির উদ্দিন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মানিক মিয়া এবং উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাসহ অন্যান্য প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও  বিভিন্ন সংগঠন, এনজিও  ও জলো ইউনিটের ইয়ূথ লিডারগণ উপস্থিত ছিলেন । 

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে নেত্রকোনা সরকারী কলেজে বিশেষ আলোচনা সভা ও বার্ষিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত:
নেত্রকোনা জলো ইয়ূথ ইউনিটের উদ্যোগে ০৯.০৩.২০১৩ তারিখে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে বিশেষ আলোচনা সভা ও বার্ষিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠান শেষে কলেজ প্রাঙ্গন হতে একটি র‌্যালী বের হয়ে শহরের গুরুত্বর্পূন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।