নারীনেত্রী ফিরোজা বুলবুল কলি: স্বেচ্ছাব্রতই যার নেশা

যশোহরের মনিরামপুর ডিগ্রী কলেজে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে শিক্ষকতা করেন জনাব ফিরোজা বুলবুল কলি। তিনি দি হাঙ্গার প্রজেক্টের বিকশিত নারী নেটওয়ার্কের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এবং যশোর জেলা কমিটির সভাপতি। শুধু শিক্ষকতা নয়, বরং একজন স্বেচ্ছাব্রতী মানুষ হিসেবে সমাজে কাজ করতে তিনি বেশি ভালবাসেন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকেই তিনি নিজ শহরের বিভিন্ন পাড়ায় হাত ধোয়ার গুরুত্ব ও মাস্ক ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা বিষষে জন-সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এই কর্মসূচিতে তাঁর ছাত্র-ছাত্রীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে।

ভাইরাসজনিত ‘লকডাউনে’র কারণে এলাকায় কর্মহীন অসহায় ১০টি পরিবারকে ১০টাকা দরে চাল ক্রয়ের জন্য তিনি ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সাথে যোগাযাগ করে তাদের “কার্ড”-এর ব্যবস্থা করেছেন। টিও’র সাথে যোগাযোগ করে হতদরিদ্র তালিকা থেকে বাদ পড়া এমন ১৫ জনকে তিনি তালিকায় যুক্ত করে দিয়েছেন। এছাড়া ১০টি পরিবারে এপ্রিল মাসে ৩বার খাদ্য সামগ্রী দিয়েছেন। এ ১০টি পরিবারে করোনাভাইরাস চলাকালীন সময়ে খাদ্য সামগ্রী সরবরাহ অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান। শুধু তাই নয়, ১০টি দরিদ্র ও হতদরিদ্র পরিবারে খাদ্যপুষ্টি নিশ্চিতের জন্য বিএডিসি থেকে বীজ সংগ্রহ করে তা পরিবারগুলোতে বিতরণ করেছেন।

এর পাশাপাশি, যশোর সদর উপজেলার আকবরপুর ইউনিয়নের ১২০টি হতদরিদ্র পরিবারের তালিকা করেন। নিজ উদ্যোগে এ সকল পরিবারে খাদ্য উপকরণ (পরিবার প্রতি চাল- ৫ কেজি, ডাল- ১ কেজি, আলু- ২ কেজি, তেল- ১লিটার, পেঁয়াজ-১ কেজি ও আটা- ৫ কেজি) পৌঁছিয়ে দিয়েছেন। নিজের ক্ষুদ্র সামর্থ্য দিয়ে তিনি চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এ দুর্যোগের সময় তিনি সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.