দ্বিতীয় জাতীয় কনভেনশন

আমাদের অঙ্গীকার। সাভার, ১৮ এপ্রিল, ২০০৮
আমরা, তৃণমূলের একদল নারী সংগঠক দ্বিতীয় জাতীয় কনভেনশন উপলক্ষে ১৮ এপ্রিল, ২০০৮-এ ঢাকায় সমবেত হয়ে ক্ষুধামুক্ত আত্মনির্ভরশীল দেশ গড়ার লক্ষ্যে ২০০৭ সালের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে প্রত্যাশার আলোকে বিভিন্ন কর্মসূচি নির্ধারণ করেছি। আমাদের কাজের উদ্দেশ্য হলো ক্ষুধা অবসানের লক্ষ্যে চলমান গণজাগরণকে ত্বরান্বিত করা। আমাদের প্রত্যাশা, দেশের জন্য একটি নতুন ভবিষ্যৎ গড়ে তোলা-যেখানে আত্মনির্ভরশীলতা অর্জনে নারী-পুরুষের যৌথ নেতৃত্ব ও সমতা প্রতিষ্ঠিত হবে এবং এ লক্ষ্য অর্জনে তৃণমূল নারীদের নেতৃত্ব দেবার সুযোগ সৃষ্টি হবে।
আমরা উপলব্ধি করতে পেরেছি যে-আমাদের, বিশেষ করে নারীদের সুপ্ত সৃজনশীল শক্তিকে কাজে লাগিয়ে এবং তাদেরকে সংগঠিত করে আমাদের প্রত্যাশিত ভবিষ্যৎ অর্জন করা সম্ভব। আর এ উপলব্ধির ভিত্তিতে আমরা নারীদের জন্য সম্মানজনক, সমতাভিত্তিক এবং ন্যায্য অবস্থা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে  সম্পূর্ণ স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে স্বপ্রনোদিত হয়ে দ্বিতীয় কনভেনশন থেকে নিম্নোক্ত কার্যক্রম বাস্তবায়ন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। Continue reading “দ্বিতীয় জাতীয় কনভেনশন”

প্রথম জাতীয় সম্মেলন

আমাদের অঙ্গীকার । ঢাকা, ৬ এপ্রিল, ২০০৭
আমরা, নারী নেত্রীরা প্রথম জাতীয় কনভেনশন উপলক্ষে ৬ এপ্রিল ২০০৭-এ ঢাকায় সমবেত হয়ে ক্ষুধামুক্ত আত্মনির্ভরশীল দেশ গড়ার লক্ষ্যে আগামী ২০০৭ সালের জন্য আমাদের প্রত্যাশার ভিত্তিতে বিভিন্ন কর্মসূচি নির্ধারণ করেছি। এর উদ্দেশ্য হলো ক্ষুধা অবসানের লক্ষ্যে চলমান গণজাগরনকে তরান্বিত করা। আমাদের প্রত্যাশা – দেশের জন্যে একটি নতুন ভবিষ্যত গড়ে তোলা, যেখানে নারী-পুরষের সমতা নিশ্চিত হবে এবং এ লক্ষ্য অর্জনে তৃণমূল নারীদের নেতৃত্ব দেবার সুযোগ সৃষ্টি হবে।
আমরা উপলব্ধি করতে পেরেছি যে-আমাদের, বিশেষ করে নারীদের সুপ্ত সৃজনশীল শক্তিকে কাজে লাগিয়ে এবং তাদেরকে সেই লক্ষ্যে সংগঠিত করে আমাদের প্রত্যাশিত ভবিষ্যত অর্জন করা সম্ভব। আর এ উপলব্ধির ভিত্তিতে আমরা এই মুহূর্তেই একাধিক কার্যক্রম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। Continue reading “প্রথম জাতীয় সম্মেলন”